1. admin@pathagarbarta.com : admin :
শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ০৫:৩৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কোটা সংস্কারের আন্দোলন ঘিরে গৃহযুদ্ধ সৃষ্টির ষড়যন্ত্র চলছে- ছাত্র প্রতিনিধিদের সঙ্গে নির্মূল কমিটির যৌথ সভা কোটা আন্দোলনকারীদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী স্লোগানের নিন্দা জানিয়েছে জাস্টিস ফর বাংলাদেশ জেনোসাইড ১৯৭১ ইন ইউকে সমাজকর্মী আনসার আহমেদ উল্লাহকে বঙ্গবন্ধু পরিষদের সংবর্ধনা আন্দোলনের নামে মুক্তিযুদ্ধের অবমাননাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি একাত্তরে বাংলাদেশে গণহত্যার ন্যায়বিচার ও আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির জন্য বিশ্বের বিশিষ্টজনদের আহবান দুই বঙ্গকন্যা ব্রিটিশ মন্ত্রীসভায় স্থান পাওয়াতে বঙ্গবন্ধু লেখক সাংবাদিক ফোরামের আনন্দ সভা ও মিষ্টি বিতরন যৌন প্রজনন স্বাস্থ্য অধিকার নেটওয়ার্ক নিয়ারস্ নির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত অনুবাদক অধ্যক্ষ মোঃ কোরেশ খান এবং গবেষক ও ড.রণজিত সিংহের স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত সাংবাদিক শাহাব উদ্দিন বেলালকে স্মরণ ও স্মারক প্রকাশনা অনুষ্ঠিত সিলেটের মেয়রের কাছে আলতাব আলী ফাউন্ডেশনের স্মারকলিপি প্রদান

অমর একুশে বইমেলা: তাড়াহুড়ো না করে জ্ঞানচর্চা বাড়ানোর পরামর্শ নতুন লেখকদের

পাঠাগার বার্তা
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩
  • ১১৪ বার পঠিত

পাঠাগার বার্তা ডেস্ক : পাঠকের উপস্থিতিতে প্রতিদিনই প্রাণবন্ত হয়ে উঠছে অমর একুশে বইমেলা। নতুন লেখকদের নতুন নতুন বইয়ের দেখা মিলছে প্রতিদিনই। নতুন বইয়ের ভিড়ে মানসম্পন্ন বই খুঁজে পেতে পাঠকের বেগ পেতে হয় বরাবরই। এছাড়া কয়টা বই পাঠক মনে রেখেছে অথবা কয়জন নতুন লেখককে পাঠক আবার খুঁজেছে, এ প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।

বইমেলাকে ঘিরে নতুন লেখকদের খুব তাড়াহুড়ো করে বই প্রকাশ না করে জ্ঞানের চর্চা বাড়ানোর পরামর্শ দিয়েছেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল। তিনি মনে করেন, নতুন লেখকদের জানার পরিধিটা আরও বাড়াতে হবে। সময় নিয়ে নিজেদের লেখালেখি চর্চা করার পরামর্শ তার।

মুহাম্মদ জাফর ইকবাল আরও বলেন, যারা নতুন লেখক তারা মনে করেন, একটা বই ছাঁপানো খুবই গুরুত্বপুর্ণ। আর এমন অনেক প্রকাশকও আছেন, যাদের টাকা দিলেই তারা বই ছাঁপিয়ে দেন। এতে নতুন লেখকরা অনেকেই আনন্দ পান বটে। কিন্তু তাতে আসলে লেখক-পাঠক কারোরই কোনো লাভ হয় না।

নতুন প্রজন্মের পাঠকদের জন্যও আলোকবার্তা দিয়েছেন তিনি। জাফর ইকবাল বললেন, পৃথিবীর মানুষকে আমি দুইভাগে ভাগ করি। এক ভাগ বই পড়ে, আরেক ভাগ বই পড়ে না। যারা বই পড়ে তারাই পৃথিবী, সমাজ ও দেশকে চালায়। আর যারা পড়ে না, তারা হয়তো শুধু কোনোভাবে নিজেকেই চালায়। আমি মনে করি না যে ওদের জীবনে সফিসটিকেটেড কোনো আনন্দ আছে। খুবই স্থুল আনন্দ নিয়ে ওদের জীবন কাটাতে হয়।

গত বইমেলায় নতুন বই এসেছিল প্রায় সাড়ে ৪ হাজারের বেশি। এবারও সংখ্যাটা এমন হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। কিন্তু পাঠকদের আক্ষেপ, এতো এতো নতুন বইয়ের ভীড়ে তারা মানসম্পন্ন বইটি কী করে খুঁজে পাবেন? অনেকের মতে, মানসম্পন্ন নতুন বইয়ের সন্ধানে বাংলা একাডেমির তরফ থেকে যদি কোনো উদ্যোগ নেয়া হতো, তাহলে পাঠক উপকৃত হতো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

এক ক্লিকে বিভাগের খবর

error: Content is protected !!