1. admin@pathagarbarta.com : admin :
শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ০৫:০৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কোটা সংস্কারের আন্দোলন ঘিরে গৃহযুদ্ধ সৃষ্টির ষড়যন্ত্র চলছে- ছাত্র প্রতিনিধিদের সঙ্গে নির্মূল কমিটির যৌথ সভা কোটা আন্দোলনকারীদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী স্লোগানের নিন্দা জানিয়েছে জাস্টিস ফর বাংলাদেশ জেনোসাইড ১৯৭১ ইন ইউকে সমাজকর্মী আনসার আহমেদ উল্লাহকে বঙ্গবন্ধু পরিষদের সংবর্ধনা আন্দোলনের নামে মুক্তিযুদ্ধের অবমাননাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি একাত্তরে বাংলাদেশে গণহত্যার ন্যায়বিচার ও আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির জন্য বিশ্বের বিশিষ্টজনদের আহবান দুই বঙ্গকন্যা ব্রিটিশ মন্ত্রীসভায় স্থান পাওয়াতে বঙ্গবন্ধু লেখক সাংবাদিক ফোরামের আনন্দ সভা ও মিষ্টি বিতরন যৌন প্রজনন স্বাস্থ্য অধিকার নেটওয়ার্ক নিয়ারস্ নির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত অনুবাদক অধ্যক্ষ মোঃ কোরেশ খান এবং গবেষক ও ড.রণজিত সিংহের স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত সাংবাদিক শাহাব উদ্দিন বেলালকে স্মরণ ও স্মারক প্রকাশনা অনুষ্ঠিত সিলেটের মেয়রের কাছে আলতাব আলী ফাউন্ডেশনের স্মারকলিপি প্রদান

আমজাদ হোসেন জ্ঞানদ্বীপ পাঠাগারের অভিনব কার্যক্রম

পাঠাগার বার্তা
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০২২
  • ২২০ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার : ‘আসুন নিজের নাম লেখা শিখি’ এই বিষয়কে প্রতিপাদ্য করে আলহাজ্ব আমজাদ হোসেন জ্ঞানদ্বীপ পাঠাগারের হলরুমে আজ প্রায় ত্রিশজন মহিলাকে নিয়ে আয়োজন করা হয়েছে নিজের নাম সুন্দর করে লেখা প্রতিযোগিতার।

মৃত্যুর আগ পর্যন্ত শিক্ষার সময়। গ্রামে থাকা মা-চাচীরা স্বল্প শিক্ষিত, তাদেরও ইচ্ছে করে পড়াশোনা করতে কিন্তু লজ্জা এবং শেখার পরিবেশ না থাকায় শিখতে পারেন না। তাদের শেখার পরিবেশ সৃষ্টি করতেই মূলত ব্যতিক্রমী এই আয়োজনের পরিকল্পনা করেন পাঠাগারের স্বপ্নদ্রষ্টা জনাব শ্যামলী বিনতে আমজাদ। এই পরিকল্পনাকেই বাস্তবতায় রূপ দান করেছেন পাঠাগারের সেচ্ছাসেবক টীমের সদস্য রহিমা রহমান বাঁধন, রাসেল হোসেন, নুর এলাহী, আশরাফি জাহান আশা এবং রুমা আক্তার। এই প্রতিযোগীতায় বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন পাঠাগারের সম্মানিত সভাপতি জনাব মো: আমজাদ হোসেন। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, এই বয়স্ক শিক্ষা কার্যক্রমে মহিলাদের অংশগ্রহণ যদি অব্যাহত থাকে তবে তাদের দৈনন্দিন জীবন আরো সহজ হবে এবং চিন্তা চেতনায় তারা আরো উন্নত হবে। এছাড়াও বিভিন্ন ভাতা এবং সেবা পাওয়ার জন্য স্বাক্ষর বাধ্যতামূলক, গ্রামের অনেক মহিলাই স্বাক্ষর করতে না পারায় টিপসই দেন, যা এই ডিজিটাল বাংলাদেশে আর মানানসই নয়। তাই গ্রামের সবাইকে নিজের নাম লেখা শিখতে হবে। আজকের প্রতিযোগিতায় বিজয়ী সালিমা বেগমকে পুরস্কার তুলে দেবার মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন সঞ্চালক রাসেল হোসেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

এক ক্লিকে বিভাগের খবর

error: Content is protected !!