1. admin@pathagarbarta.com : admin :
মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ০৬:০৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
আন্দোলনের নামে মুক্তিযুদ্ধের অবমাননাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি একাত্তরে বাংলাদেশে গণহত্যার ন্যায়বিচার ও আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির জন্য বিশ্বের বিশিষ্টজনদের আহবান দুই বঙ্গকন্যা ব্রিটিশ মন্ত্রীসভায় স্থান পাওয়াতে বঙ্গবন্ধু লেখক সাংবাদিক ফোরামের আনন্দ সভা ও মিষ্টি বিতরন যৌন প্রজনন স্বাস্থ্য অধিকার নেটওয়ার্ক নিয়ারস্ নির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত অনুবাদক অধ্যক্ষ মোঃ কোরেশ খান এবং গবেষক ও ড.রণজিত সিংহের স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত সাংবাদিক শাহাব উদ্দিন বেলালকে স্মরণ ও স্মারক প্রকাশনা অনুষ্ঠিত সিলেটের মেয়রের কাছে আলতাব আলী ফাউন্ডেশনের স্মারকলিপি প্রদান মুক্তিযুদ্ধ আমার অহংকার- দেবেশ চন্দ্র সান্যাল বৃটেনের কার্ডিফ বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের উদ্দ্যোগে ঈদ পূনর্মিলনী অনুষ্ঠিত অনলাইন সাহিত্য গ্রোপের ঈদ পুনর্মিলনী

মৃত্যুর ১৫ বছর পর আসছে মান্নার সিনেমা ‘জীবন যন্ত্রণা’

পাঠাগার বার্তা
  • আপডেট সময় : শনিবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ১৫৮ বার পঠিত

পাঠাগার বার্তা ডেস্ক : ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় নায়ক প্রয়াত আসলাম তালুকদার মান্না অভিনীত শেষ সিনেমা ‘জীবন যন্ত্রণা’। এটি এখনও আলোর মুখ দেখেনি। কয়েকবার এর মুক্তির পরিকল্পনা থাকলেও তা পিছিয়ে যায়। মান্নাভক্তদের জন্য সুখবর হচ্ছে, নতুন করে এর মুক্তি নিয়ে ভাবছেন প্রযোজক। আগামী ১৫ ডিসেম্বর সিনেমাটি মুক্তি দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে।

ছবির প্রযোজক খোরশেদ আলম খসরু বলেন, ‘এটি মুক্তিযুদ্ধের সিনেমা, সংগত কারণে মুক্তিযুদ্ধের বিশেষ দিনকে সামনে রেখেই মুক্তি দিতে চাই। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী ১৬ ডিসেম্বর ঘিরে ১৫ ডিসেম্বর মুক্তি পাবে সিনেমাটি।’

২০২১ সালের অক্টোবরে এটি সেন্সর ছাড়পত্র পেয়েছে। প্রযোজক খোরশেদ আলম খসরুর সঙ্গে ছবিটি যৌথভাবে পরিচালনা করেছেন জাহিদ হোসেন। সিনেমার মুক্তি এত বিলম্বে কেন– জানতে চাইলে প্রযোজক বলেন, ‘লীলামন্থন নাম দিয়ে সিনেমার কাজ শুরু করেছিলাম। ওই নামে ২০১১ সালে সেন্সরে জমা দিই। নাম নিয়ে সেন্সর বোর্ডের আপত্তির কারণে ছাড়পত্র পেতে দেরি হয়। নানা জটিলতায় এরপর সিনেমাটি মুক্তি দেওয়া সম্ভব হয়নি। করোনার কারণেও মুক্তি পিছিয়ে যায়। আমি মনে করি, এই সময়ে তারকাবহুল সিনেমাটির আবেদনও অনেকটাই কমে গেছে। সিনেমাটি মুক্তি দিলেও হয়তো লোকসান হবে। এরপরও এটি মুক্তি দিতে চাই। মান্নাভক্ত ও সাধারণ দর্শক অপেক্ষায় আছেন সিনেমাটির জন্য।’

পরিচালনার পাশাপাশি কাহিনি, সংলাপ ও চিত্রনাট্য লিখেছেন জাহিদ হোসেন। তিনি বলেন, ‘বেশ যত্ন নিয়ে সিনেমাটি নির্মাণ করেছি। অনেক অপেক্ষার পর এটি মুক্তি পাবে ভেবে ভালো লাগছে। মান্না এ সিনেমার অন্তঃপ্রাণ। তাঁর শিডিউল পেয়েছিলাম ১০ দিনের। শেষ দৃশ্যটি তিনি করে যেতে পারেননি। এর আগেই পৃথিবী থেকে চিরবিদায় হন। পরে ডামি ব্যবহার করে গ্রেনেড হামলায় তাঁর শহীদ হওয়ার দৃশ্যটি করেছি। সিনেমার ১২টি গল্পের নায়কই মান্না। তিনি একেবারে নতুনভাবে হাজির হবেন সিনেমায়, যা দেখলে দর্শক সহজেই বুঝতে পারবেন। আশা করছি দর্শক সিনেমাটি পছন্দ করবেন।’

২০০৬ সালে ‘লীলামন্থন’ নামে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক সিনেমাটির শুটিং শুরু হয়। প্রায় তিন বছর সময় নিয়ে ২০০৮ সালে শেষ হয় এর দৃশ্য ধারণ। সিনেমার শেষ দৃশ্য ও ডাবিংয়ের কাজ শেষ করে যেতে পারেননি মান্না। পরে আংশিক ডাবিং করেন অভিনয়শিল্পী রাতিন। সিনেমার বাকি কাজ গুছিয়ে ২০১১ সালে সেন্সর বোর্ডে জমা দেওয়ার পর নামের কারণে তা আটকে থাকে। তখন নাম বদলানো না হলেও ১০ বছর পর নাম বদলে ছাড়পত্র পেল সিনেমাটি।মুক্তিযুদ্ধের সময়ের একদল যৌনকর্মীর মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে অবস্থান নেওয়ার গল্প নিয়ে নির্মিত হয়েছে ‘জীবন যন্ত্রণা’।

সিনেমায় মান্নার সহশিল্পী হিসেবে কাজ করেছেন মৌসুমী, পপি, শাহনূর, মুক্তি, দীঘি, বাপ্পারাজ, আলীরাজ, আনোয়ারা, শহিদুল আলম সাচ্চু, মিশা সওদাগর প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, মান্নার জন্ম ১৯৬৪ সালের ১৪ এপ্রিল টাঙ্গাইলে। তাঁর প্রকৃত নাম আসলাম তালুকদার। ১৯৮৪ সালে এফডিসির ‘নতুন মুখের সন্ধানে’ কার্যক্রমে অংশ নিয়ে সুযোগ পেয়েছিলেন চলচ্চিত্রে। বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারে তিনি ৩০০-এর বেশি সিনেমায় অভিনয় করেছেন। চলচ্চিত্রে অবদান রাখায় জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও পেয়েছেন এই নন্দিত অভিনেতা। তিনি ২০০৮ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি মৃত্যু বরন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

এক ক্লিকে বিভাগের খবর

error: Content is protected !!