1. admin@pathagarbarta.com : admin :
মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ০৫:৪৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
আন্দোলনের নামে মুক্তিযুদ্ধের অবমাননাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি একাত্তরে বাংলাদেশে গণহত্যার ন্যায়বিচার ও আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির জন্য বিশ্বের বিশিষ্টজনদের আহবান দুই বঙ্গকন্যা ব্রিটিশ মন্ত্রীসভায় স্থান পাওয়াতে বঙ্গবন্ধু লেখক সাংবাদিক ফোরামের আনন্দ সভা ও মিষ্টি বিতরন যৌন প্রজনন স্বাস্থ্য অধিকার নেটওয়ার্ক নিয়ারস্ নির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত অনুবাদক অধ্যক্ষ মোঃ কোরেশ খান এবং গবেষক ও ড.রণজিত সিংহের স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত সাংবাদিক শাহাব উদ্দিন বেলালকে স্মরণ ও স্মারক প্রকাশনা অনুষ্ঠিত সিলেটের মেয়রের কাছে আলতাব আলী ফাউন্ডেশনের স্মারকলিপি প্রদান মুক্তিযুদ্ধ আমার অহংকার- দেবেশ চন্দ্র সান্যাল বৃটেনের কার্ডিফ বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের উদ্দ্যোগে ঈদ পূনর্মিলনী অনুষ্ঠিত অনলাইন সাহিত্য গ্রোপের ঈদ পুনর্মিলনী

সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য সুরক্ষায় বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক নীতি প্রণয়নসহ বিভিন্ন যুগোপযোগী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে- সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

পাঠাগার বার্তা
  • আপডেট সময় : সোমবার, ২৪ এপ্রিল, ২০২৩
  • ৫৫ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার : সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি বলেছেন, সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য সুরক্ষায় বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক নীতি প্রণয়নসহ বিভিন্ন যুগোপযোগী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। এটি ধর্ম, বর্ণ, জাতি, গোষ্ঠী নির্বিশেষে বাংলাদেশের সকল নাগরিকের জন্য প্রযোজ্য। আমাদের দেশের সংবিধানেও সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য সুরক্ষার বিষয়টিকে যথেষ্ট গুরুত্বারোপ করা হয়েছে।

প্রতিমন্ত্রী আজ বিকালে চীনের শানসি (Shaanxi) প্রদেশের জিয়ান (Xi’an) সিটিতে “Alliance for Cultural Heritage in Asia” (ACHA) বা ‘সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য বিষয়ক এশীয় জোট’-এর সাধারণ পরিষদের কাউন্সিল সভায় পর্যবেক্ষক দেশের প্রতিনিধি হিসেবে তার বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বলেন, সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য সুরক্ষায় বাংলাদেশ ইতোমধ্যে ইউনেস্কো’র বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক কনভেনশন, প্রটোকল, চার্টার এবং নির্দেশিকা অনুসমর্থন করেছে। তিনি বলেন, ৪৪টি দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক বিনিময় চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক রয়েছে।

কে এম খালিদ বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য সংরক্ষণ ও সুরক্ষাকে অগ্রাধিকার দিয়েছে এবং সেগুলিকে আমরা বিশ্বদরবারে তুলে ধরছি। তিনি অভিমত ব্যক্ত করে বলেন, সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য বিষয়ক এশীয় জোট (ACHA)-এর এ প্রতিষ্ঠা সমাবেশ বাংলাদেশের পাশাপাশি এশীয় মহাদেশের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য সুরক্ষায় আমাদের সম্মিলিত প্রচেষ্টাকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাবে যা প্রকারান্তরে সাংস্কৃতিক ভারসাম্যপূর্ণ টেকসই বাংলাদেশ ও এশিয়া গড়ে তুলতে সহায়তা করবে।

প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশকে পর্যবেক্ষক রাষ্ট্র হিসেবে অন্তর্ভুক্তির জন্য ACHA কাউন্সিলকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান এবং ACHA-এর সকল নতুন সদস্য রাষ্ট্র এবং পর্যবেক্ষক রাষ্ট্রসমূহকে অভিনন্দন জানান।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের মে মাসে অনুষ্ঠিত এশীয় সভ্যতা সংলাপ বিষয়ক সম্মেলনে (Conference on Dialogue of Asian Civilizations) চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং এশিয়া জুড়ে সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য সংরক্ষণের জন্য একটি আন্তর্জাতিক উদ্যোগের প্রস্তাব করেছিলেন। ২৭ থেকে ২৮ অক্টোবর ২০২১ মেয়াদে ‘সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য সংরক্ষণ বিষয়ক এশিয়ান ডায়ালগ’ সফলভাবে আয়োজিত হয় এবং এতে বাংলাদেশের প্রতিনিধি অনলাইনে সংলাপে অংশগ্রহণ করেন। সংলাপের সময় চীন, আর্মেনিয়া, কম্বোডিয়া, ডিপিআরকে (উত্তর কোরিয়া), ইরান, কিরগিজিস্তান, পাকিস্তান, সিরিয়া, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও ইয়েমেন সহ এশিয়ার দশটি দেশ যৌথভাবে অ্যালায়েন্স ফর কালচারাল হেরিটেজ ইন এশিয়া (ACHA) বা ‘সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য বিষয়ক এশীয় জোট’ প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নেয়।

এশীয় দেশগুলির মধ্যে সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য বিষয়ক সহযোগিতার জন্য একটি আন্তঃসরকারি ব্যবস্থা হিসাবে ACHA-কে একীভূত করার জন্য চীন ২৪ থেকে ২৬ এপ্রিল ২০২৩ তারিখ পর্যন্ত শানসি প্রদেশের জিয়ান সিটিতে ACHA প্রতিষ্ঠা পরিষদ (Founding Assembly)-এর আয়োজন করেছে, যেখানে এশিয়ার ২০টি দেশের সাংস্কৃতিক ও ঐতিহ্য কর্তৃপক্ষ থেকে মন্ত্রী পর্যায়ের কর্মকর্তা, আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধি এবং প্রাসঙ্গিক প্রতিষ্ঠানের বিশেষজ্ঞসহ প্রায় ১০০ জন প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

এক ক্লিকে বিভাগের খবর

error: Content is protected !!